পরীমনির সাড়ে ৩ কোটি, অপুর ৪৬ লাখ!

বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা পরীমনি ও অপু বিশ্বাস। টানা দুই ঈদে দুটি গাড়ি কিনেছেন তারা। অপু কিনেছেন অডি থ্রি সেলুন, পরীমনি রয়েল ব্লু রঙের মাসেরাতি। করোনার এই দুঃসময়ে যখন বেশি বেশির ভাগ শিল্পী ও কলাকুশলী ঘরে বসেছিলেন কলাকুশলীদের অনেকে অর্থকষ্টে ঢাকা ছেড়েছেন তখন দুই নায়িকার

বাড়িতে নতুন গাড়ি বিস্মিত করেছে চলচ্চিত্রের অনেককে। কেউ কেউ আবার অভিনন্দনও জানিয়েছেন। গত ঈদে পরীমনি কিনেছেন ইতালিয়ান অভিজাত গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ফিয়াট অটোমোবাইলসের রয়েল মাসেরাতি ব্রান্ডের একটি গাড়ি। আমদানিকারক সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশে এ গাড়ির দাম কমপক্ষে সাড়ে তিন কোটি টাকা।

ক্যারিয়ারের শুরুতে কিন্তু এত দামি গাড়ি ব্যবহার করতেন না ঢালিউডের এই নায়িকা। পরীমনি ব্যবহার করতেন টয়োটা ব্যান্ডের প্রিমিও মডেলের একটি গাড়ি। তবে ব্যবহারের পাশাপাশি গাড়ি সংগ্রহের প্রতিও ঝোঁক রয়েছে এই নায়িকার। আর তাই মাঝে সত্তরের দশকের নীল রঙের একটি মিতসুবিশি লেন্সার কিনেছিলেন ব্যক্তিগত সংগ্রহশালার জন্য।

গাড়ির ব্যাপারে বরাবরই শৌখিন এ নায়িকা। সবশেষ ব্যবহার করেন প্রায় কোটি টাকা দামের হ্যারিয়ার। সাদা রঙের সেই গাড়ি গত ২৪ জুন দুর্ঘটনায় দুমড়ে–মুচড়ে যায়। এদিকে এবার ঈদে (ঈদুল আজহা) নতুন গাড়ি কিনেছেন অপু বিশ্বাস। তিনি কিনেছেন লাল রঙের অডি থ্রি সেলুন। গাড়িটির নিবন্ধন ফিসহ ক্রয় করতে অপুর খরচ করতে হয়েছে ৪৫ লাখ ৮০ হাজার টাকা।

অডি ঢাকা সূত্রে জানা গেছে, ৩০ জুলাই লাল রঙের অডি থ্রি সেলুন কার চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসকে হস্তান্তর করা হয়েছে। নায়িকা নিজে উপস্থিত থেকে গাড়িটি গ্রহণ করেছেন। টানা দুই ঈদে কোনো সিনেমাই মুক্তি পায়নি ঢালিউডের এই দুই নায়িকার। এরপরেও নতুন নতুন গাড়ি কেনায় নেটিজেনদের তোপের মুখে পড়েছেন তারা। ঊল্লেখ্য, সবকিছুই ২০২০ সালের ঘটনা।

About Ishaque Ali

Check Also

স্যার আমি আস্তে করি, চেষ্টা করি যেন বেশি ব্যথা না পায়

ক্লাস রুটিন আর পরীক্ষার রুটিনের বাইরে ভিন্ন রকম এক রুটিন চালু করেছে রাঙ্গুনিয়ার এক কওমি …